protichinta

লে খ ক প রি চি তি

লে খ ক প রি চি তি

হায়দার আলী খান

            যুক্তরাষ্ট্রের ডেনভার বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতির অধ্যাপক এবং আঙ্কটাডের সাবেক জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা। তাঁর লেখা বইয়ের সংখ্যা ২০ এবং আন্তর্জাতিক জার্নালে প্রকাশিত প্রবন্ধের সংখ্যা শতাধিক। হায়দার আলী খান বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত লেখক। তাঁর প্রকাশিত রাজনৈতিক-অর্থনীতি বিষয়ক বইয়ের মধ্যে রয়েছে চায়না’স মার্কেট সোশ্যালিজম অ্যান্ড ন্যাশনাল ইনোভেশন সিস্টেম অ্যাট দ্য ক্রস-রোডস (২০১০), রিডিউসিং পোভার্টি: প্যাটার্নস অব পটেনশিয়াল হিউম্যান প্রোগ্রেস (২০০৮), পোভার্টি স্ট্র্যাটেজিস ইন এশিয়া: গ্রোথ প্লাস (২০০৬), গ্লোবাল মার্কেটস অ্যান্ড ফিন্যান্সিয়াল ক্রাইসিস (২০০৪)।

জেসন হিকেল

            লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিকসের নৃতত্ত্বের অধ্যাপক। ২০১১ সালে ইউনিভার্সিটি অব ভার্জিনিয়া থেকে নৃতত্ত্বে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। ২০০৪ সাল থেকে আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলে গবেষণা করছেন। তাঁর গবেষণার বিষয় বিশ্বায়ন, ফিন্যান্স, গণতন্ত্র, সংঘাত, ধর্মীয় আচার ইত্যাদি। প্রকাশিত গ্রন্থ ডেমোক্রেসি অ্যাস ডেথ: দ্য মোর্যাল অর্ডার অব অ্যান্টি-লিবারাল পলিটিকস ইন সাউথ আফ্রিকা (ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া প্রেস, ২০১৫)।

বদরুল আলম খান

            বদরুল আলম খান দীর্ঘকাল ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনায় নিযুক্ত আছেন। চট্টগ্রাম ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজতত্ত্ব বিভাগে শিক্ষকতার পর বর্তমানে তিনি অস্ট্রেলিয়ার সিডনি শহরে ইউনিভার্সিটি অব ওয়েস্টার্ন সিডনিতে অধ্যাপনা করছেন। তাঁর গবেষণার বিষয়বস্তু আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, বাংলাদেশ সমাজ, শ্রেণি, ধর্ম ও বিশ্বায়ন। তিনি বেশ কয়েকটি গ্রন্থ রচনা করেছেন, যার মধ্যে পুঁজিবাদের সমাজতত্ত্ব (সম্পাদনা), সমাজতত্ত্ব: সংকট ও সম্ভাবনার দেড়শ বছর, দর্শনের সংকট এবং তৃতীয় বিশ্ব, ধর্ম ও সমাজ বিপ্লব বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। সংঘাতময় বাংলাদেশ: অতীত থেকে বর্তমান নামক একটি গ্রন্থ ২০১৫ সালে প্রথমা প্রকাশন থেকে প্রকাশিত হয়েছে।

আলী রীয়াজ

            লেখক ও গবেষক। ইলিনয় স্টেট ইউনিভার্সিটির পলিটিকস অ্যান্ড গভর্নমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক। ক্লেফিন ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব লিংকন ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক। বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিসে দীর্ঘদিন সাংবাদিকতা করেছেন। গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনা রিলিজিয়ন অ্যান্ড পলিটিকস ইন সাউথ এশিয়া (রুটলেজ, ২০১০); ফেইথফুল এডুকেশন: মাদ্রাসা ইন সাউথ এশিয়া (রাটগার্স ইউনিভার্সিটি প্রেস, ২০০৮); ইসলামিস্ট মিলিট্যান্সি ইন বাংলাদেশ: আ কমপ্লেক্স ওয়েব (রুটলেজ, ২০০৮); ইসলাম অ্যান্ড আইডেন্টিটি পলিটিকস অ্যামাং ব্রিটিশ বাংলাদেশিজ: আ লিপ অব ফেইথ (ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটি প্রেস, ২০১৩), হাউ ডিড উই অ্যারাইভ হিয়ার (প্রথমা, ২০১৫) বাংলাদেশ: আ পলিটিক্যাল হিস্ট্রি সিনস ইন্ডিপেন্ডেন্স (আই. বি. টরিস, ২০১৬)।

মতিউর রহমান

            সাংবাদিক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পরিসংখ্যানে স্নাতকোত্তর। সম্পাদক ছিলেন সাপ্তাহিক একতা ও ভোরের কাগজ-এর। বর্তমানে প্রথম আলোর সম্পাদক। উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ: কার রাজনীতি কীসের রাজনীতি (২০০৪), ইতিহাসের সত্য সন্ধানে: বিশিষ্টজনদের মুখোমুখি (২০০৪), শহীদ নূর হোসেন (২০১৩), মুক্ত গণতন্ত্র রুদ্ধ রাজনীতি (২০১৪), খাপড়া ওয়ার্ড হত্যাকাণ্ড ১৯৫০ (২০১৫), আকাশভরা সূর্যতারা: কবিতা-গান-শিল্পের ঝরনাধারায় (২০১৪) ইত্যাদি। ফিলিপাইনের ম্যানিলা থেকে ‘সাংবাদিকতা, সাহিত্য ও সৃজনশীল যোগাযোগ’-এ ২০০৫ সালে পেয়েছেন র্যামন ম্যাগসাইসাই পুরস্কার।

জাকির হোসেন রাজু

            চলচ্চিত্র গবেষক ও শিক্ষক। ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ (আইইউবি)-এর মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন বিভাগের অধ্যাপক। একই বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর সোশ্যাল সায়েন্স রিসার্চ-এর পরিচালক। বর্তমানে বাংলাদেশ শর্ট ফিল্ম ফোরামের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ২০০৫ সালে অস্ট্রেলিয়ার লা ট্রব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চলচ্চিত্র অধ্যয়নে পিএইচডি সম্পন্ন করেন। অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, নেদারল্যান্ডস, ফ্রান্স ও বাংলাদেশে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উত্সবে জুরিবোর্ডের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। প্রকাশিত বই: বাংলাদেশ সিনেমা অ্যান্ড ন্যাশনাল আইডেন্টিটি: ইন সার্চ অব দ্য মডার্ন? (রুটলেজ, লন্ডন: ২০১৫)।

আইরিন খান

            ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করেছেন। তিনি ডাড বৃত্তি নিয়ে জার্মানি থেকে উন্নয়ন ও শাসন বিষয়ে স্নাতকোত্তর করেছেন। বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব পিস অ্যান্ড সিকিউরিটি স্টাডিজ ও বাংলাদেশ এন্টারপ্রাইজ ইনস্টিটিউটে গবেষণার কাজ করেছেন। বর্তমানে শিশু নির্যাতন প্রতিরোধকাজের সাথে যুক্ত আছেন। তাঁর আগ্রহের বিষয় নিরাপত্তা, ইসলামি চরমপন্থা, রাজনৈতিক ইসলাম, ভূরাজনীতি এবং আন্তর্জাতিক রাজনীতি।

pathok

যোগাযোগের ঠিকানা

সিএ ভবন,
১০০ কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ,
কারওয়ান বাজার, ঢাকা - ১২১৫।

ফোন: ৮৮০-২-৮১১০০৮১, ৮১১৫৩০৭
ফ্যাক্স - ৮৮০-২-৯১৩০৪৯৬

protichinta kinte chile